রাজনীতি

কোনো অন্যায়কারীকে প্রশ্রয় দেবে না ছাত্রলীগ।

ছাত্রলীগ কোনো অন্যায়কারীকে প্রশ্রয় দেবে না বলে জানিয়েছেন সংগঠনটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য। মধুর ক্যান্টিনে সংবাদ সম্মেলনে তারা বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে দায়িত্ব দিয়েছেন তা অবশ্যই চ্যালেঞ্জিং। সব চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে ছাত্রলীগকে এগিয়ে নেয়ার অঙ্গীকার করেন তারা।
দায়িত্ব পাওয়ার পর সকালেই মধুর ক্যান্টিনে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক।
সংবাদ সম্মেলনে তারা জানান, তাদের কাঁধে এখন অনেক বড় দায়িত্ব। স্পষ্ট করেই বললেন, কোন অন্যায়কে প্রশ্রয় দেয়া হবে না। কর্ম পরিকল্পনা করেই এগিয়ে যাওয়ার কথা জানান নতুন দায়িত্ব পাওয়া দুই ছাত্রনেতা।
আল নাহিয়ান খান সাংবাদিকদের বলেন, দেশরত্ন শেখ হাসিনা আমাদের ছাত্রলীগের দায়িত্ব দিয়েছেন। এই মুহূর্তে এটি আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জ। তবে আমরা মনে করি, যত চ্যালেঞ্জই আসুক, সব মোকাবিলা করে বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া সংগঠন ছাত্রলীগকে আমরা এগিয়ে নিয়ে যাব।
ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা যেভাবে দিকনির্দেশনা দেবেন, সেভাবেই আমরা চলব।
আল নাহিয়ান খান বলেন, ‘ছাত্রলীগকে পরিচালনা করতে হলে অবশ্যই কর্মপরিকল্পনা থাকতে হবে। আমরা বসে সার্বিক একটা পরিকল্পনা করব, ছক আঁকব ৷ সেই ছক অনুযায়ী বাকি যে ১০ মাস সময় আছে, আমাদের যেসব কমিটি বিলুপ্ত হয়েছে বা যেসব কমিটি মেয়াদোত্তীর্ণ হয়েছে, সেগুলো বিলুপ্ত করে সুন্দর ও যুগোপযোগী ছাত্রলীগ গড়ে তুলব ৷ কোনো ধরনের কালিমা আমাদের গায়ে যেন না লাগে, সে জন্য আমরা সব সময় সচেষ্ট থাকব।
ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য বলেন, আমরা দুজন ভারপ্রাপ্ত হিসেবে গতকাল দায়িত্ব পেয়েছি। সামনের ১০ মাসের জন্য আমাদের এই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। কাল সোমবার বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের পর আনুষ্ঠানিকভাবে সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনা শুরু করব। পুষ্পস্তবক অর্পণের পর ছাত্রলীগের একমাত্র অভিভাবক জননেত্রী শেখ হাসিনা ও ছাত্রলীগের দায়িত্বপ্রাপ্ত আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে বৈঠকের মাধ্যমে আমাদের কর্মপরিকল্পনা নির্দিষ্ট করব।
গণভবনে আওয়ামী লীগের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম কার্যনির্বাহী সংসদের সভায় ছাত্রলীগের বিষয়টি বেশি গুরুত্ব পায়। সভায় উপস্থিত সূত্র জানায়, ছাত্রলীগের সাম্প্রতিক নেতিবাচক কর্মকাণ্ডের বিষয়টি উল্লেখ করে দলের সভাপতি শেখ হাসিনা দুই শীর্ষ নেতাকে বাদ দেওয়ার কথা বলেন। এ সময় তিনি তাঁদের পদত্যাগ করার নির্দেশনা দেন। পাশাপাশি আল নাহিয়ান খান ও লেখক ভট্টাচার্যকে নতুন দায়িত্ব দেওয়ার সিদ্ধান্ত দেন। তাঁরা যাতে সম্মেলনের মাধ্যমে পরবর্তী নেতৃত্ব ঠিক করেন, সে কথাও বলেন।
এদিকে বিতর্ক থাকলেও ডাকসুর জিএস রাব্বানীর বিষয়ে গঠনতন্ত্র অনুযায়ী সিদ্ধান্ত হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. মোঃ আখতারুজ্জামান।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker