অন্যান্য খবর

সাদা কালো বিবর্ন অ্যামেরিকা!

সুলতানা রহমান এর ওয়াল থেকে…

সিনিয়র সাংবাদিক, যুক্তরাষ্ট্র

ট্রেনে আমার পাশের সিটটি খালি ছিলো; সেখানে আসন নিলেন রোদে পোড়া তামাটে বর্নের এক নারী, তার সোনালী চুল আর নীলাভ চোখ বলে দিচ্ছে জাতিগত পরিচয়। তার অপরপ্রান্তে আগেই ছিলেন একজন আফ্রিকান নারী, দেখতে খুবই পরিশীলিত; শোভন, মুখে স্মিত হাসি। হঠাৎ তিনি কানের হেডফোনটি খুলে কটমট করে তাকালেন- আমি একটু নড়েচড়ে বসলাম! পরোক্ষনেই বুঝলাম-একটা নিরব সংঘাত চলছে আমার পাশে এবং সামনে! সোনালী চুলের নীলাভ চোখ কালো নারীটির দিকে, মুখে বলছে-আই ডোন্ট লাইক ইউ, আই ডোন্ট লাইক ইউ!
আমাদের পাশেই দাড়িয়ে ছিলো একজন কালো পুরুষ, নীলাভ চোখ তার দিকেও ঘুরে ঘুরে বলছে-আই ডোন্ট লাইক ইউ! ট্রেনে অন্য যাত্রীরাও ততক্ষনে বুঝে গেছে-এখানে বইছে একটা ঘৃনার আবহ! অন্য যাত্রীদের অধিকংশ ব্রাউন, চাইনিজ এবং জাপানিজ! বাসে ট্রেনে সাদাদের খুব একটা দেখা যায়না, আবার বাহ্যিক ভাবে তাদেরকে কখনো খুব একটা ঊগ্র আচরন দেখিনি যতটা দেখেছি কালোদের। তাই আজকে এই নীলাভ চোখের কটাক্ষ আর ঘৃনা কিছুটা বিষ্মিত করলেও পরোক্ষনে মনে হলো গেলো সপ্তাহে এমনই ঘৃনার কবলে জীবন গেছে ৩১ জনের! টেক্সাসের শান্ত নিরিবিলি নিরাপদ শহর এল পাসো-তে ২২জন এবং ওহাইও’ডেটনে ৯ জন বন্দুকধারীর গুলিতে নিহত হন। দুইজন ঘাতকই সাদা এবং অন্য জাতির প্রতি বিদ্বেষ এবং ঘৃনাজনিত কারনে তারা হত্যাযজ্ঞে মেতে ওঠে! তাদের হাত থেকে রেহাই পায়নি দুই বছরের শিশুও। প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প অভিবাসিদের বিরুদ্ধে যেসব শব্দ ব্যবহার করেন, ঘাতকরাও পুলিশের কাছে সেই একই শব্দ দিয়ে ব্যাখ্যা করেছেন হিসপ্যানিক এবং ম্যাক্সিকানদের প্রতি তার বিদ্বেষ! হোয়াইট সুপ্রিমেসিকে উসকে দিয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তার ভোটব্যাংক সুরক্ষিত রাখতে চান-অভিযোগ প্রতিপক্ষ রাজনীতিবিদদের তো বটেই, একই অভিযোগ উঠে আসছে বর্ণবাদ নিয়ে
সাম্প্রতিক গবেষণা গুলোতেও! তাই বলে ব্লু স্টেইট নিউ ইয়র্কের বাসে ট্রেইনে অমন ঘৃনার দৃশ্য এখনো কল্পনা করা খুব সহজ নয়! যে বর্ণবাদ এতোদিন কিছুটা আড়ালে ছিলো, ছিলো গোপনে গোপনে তা কি আবার প্রকাশ্য হচ্ছে সর্বব্যাপী?

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker