জাতীয়বাণিজ্য

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ‘বিশেষ সেবা সপ্তাহ’

পবিত্র রমজান ও ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে, আগামী ৩০ এপ্রিল থেকে ০৬ মে পর্যন্ত বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও অধীনস্থ দপ্তরসমূহে ‘বিশেষ সেবা সপ্তাহ’ পালন করা হবে।

বৃহস্পতিবার (২৯ এপ্রিল) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আগামী ৩০ এপ্রিল থেকে ৬ মে পর্যন্ত সেবা সপ্তাহ পালন করা হবে। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় করোনা মহামারিকালে পবিত্র রমজান ও ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে বাজারে অত্যাবশ্যকীয় পণ্যের সরবরাহ স্বাভাবিক রাখার স্বার্থে বাজার মনিটরিং কার্যক্রম জোরদার করেছে। নিত্যপণ্যের সরবরাহ স্বাভাবিক রাখার জন্য বন্দরগুলোসহ সব পরিবহন ও যোগাযোগ ব্যবস্থা অটুট রাখতে সমন্বয় কার্যক্রম অব্যাহত রাখা হয়েছে। ‘বিশেষ সেবা সপ্তাহ’ পালনের জন্য মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন সব দফতর ও সংস্থা নিজ নিজ সেবা নিয়ে বিশেষ পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করবে।

টিসিবি ‘বিশেষ সেবা সপ্তাহ’ উপলক্ষ্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য-সামগ্রী অধিক পরিমাণ জনগণের মধ্যে বিতরণের ব্যবস্থা নিবে। ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি) পণ্য বরাদ্দের পরিমাণ বৃদ্ধিসহ ট্রাকসেল বিক্রয় কার্যক্রম বৃদ্ধি করবে। কোভিড-১৯ বিস্তার রোধকল্পে বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ এবং সেবা সপ্তাহ উল্লেখপূর্বক ট্রাকসেলে বিশেষ ব্যানার ব্যবহার করবে।

এছাড়া জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মজুদ ও সরবরাহ, ন্যায্যমূল্যে ক্রয়-বিক্রয় এবং মূল্য স্থিতিশীল রাখার লক্ষ্যে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণপূর্বক ঢাকা মহানগরসহ দেশব্যাপী শুক্র ও শনিবারসহ সাতদিন বাজার তদারকি কার্যক্রম জোরদার করবে এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য স্থিতিশীল রাখার লক্ষ্যে দোকান/ প্রতিষ্ঠানে পণ্যের মূল্য তালিকা টানানো/প্রদর্শন করার বিষয়টি জনস্বার্থে নিশ্চিতকরণের পাশাপাশি বাজার তদারকি/অভিযান পরিচালনাকালে সচেতনামূলক কর্মকান্ড জোরদার করবে। বাজার অভিযান পরিচালনাকালে হ্যান্ডমাইকের মাধ্যমে ক্রেতা ও বিক্রেতাদের মধ্যে সচেতনামূলক কার্যক্রম পরিচালনা এবং ’মাস্ক পরিধান করুন সুস্থ থাকুন’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে ভোক্তা অধিকার পথচারীর মধ্যে মাস্ক বিতরণ এবং স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কে জনসাধারণকে সচেতন করবে।

বিশেষ সেবা সপ্তাহ উপলক্ষ্যে রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো হতে রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠানের অনুকূলে রপ্তানির বিপরীতে ইস্যুকৃত সকল সার্টিফিকেট অব অরিজিন (সিও), জিএসপি, সাপটা, সাফটা, আপটা) আবেদনের তারিখের মধ্যে সেবা প্রদানের জন্য হেল্প ডেস্ক স্থাপন করা হবে। এছাড়া রপ্তানি বিষয়ক যে কোন পরামর্শ প্রদানের জন্য ‘পরামর্শ ডেস্ক স্থাপন’ করা হবে।

যৌথমূলধন কোম্পানি ও ফার্মসমূহের পরিদপ্তর সিংগেল প্রসেস প্রক্রিয়ায় কোম্পানি রেজিষ্ট্রেশনে সেবা গ্রহীতাদের অনলাইনে আবেদন পূরণে সহায়তা করবে এবং ২ দিনের মধ্যে মর্টগেজ নিবন্ধন (অনলাইন) কাজ সম্পন্ন ও স্বয়ংক্রিয়ভাবে ইমেইল-এ সার্টিফিকেট প্রদান করবে। শেয়ার ট্রান্সফার সংক্রান্ত পেন্ডিং রিটার্ণ রেকর্ডভূক্ত করণে ক্র্যাশ কর্মসূচি গ্রহণ এবং দীর্ঘ দিনের পেন্ডিং রিটার্ণ নিষ্পত্তিকরণের জন্য ক্র্যাশ প্রোগ্রাম গ্রহণ করবে। ভিডিও পোর্টাল উন্মুক্ত করবে এবং ওয়ান স্টপ সার্ভিসের এর মাধ্যমে সার্টিফাইড কপি প্রদান করবে।

বাংলাদেশ চা বোর্ড চলতি মৌসুমে দেশে চায়ের উত্পাদন স্বাভাবিক রাখার জন্য দেশের সকল চা বাগানে ভর্তুকী মূল্যে সার বিতরণে সহায়তা প্রদান কার্যক্রম এবং অন-লাইন চা রপ্তানী লাইসেন্স প্রদান অব্যাহত রাখবে। ২০২১-২০২২ নিলাম বর্ষের নিলাম কার্যক্রম চট্টগ্রাম ও শ্রীমঙ্গলে ০৩ মে ২০২১ তারিখে শুরু হবে এবং ’দুটি পাতা একটি কুড়ি’ এবং ’চা সেবা’ এ্যাপস দুটির মাধ্যমে গ্রাহক পর্যায় চা তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সেবা প্রদান অব্যাহত রাখবে। চলতি মৌসুমে দেশে চায়ের উত্পাদন স্বাভাবিক রাখার জন্য চা বাগানের মৃত্তিকা পরীক্ষা, চায়ের নমুনা পরীক্ষা এবং পেষ্টিসাইড এ্যানালাইশিস করে চা উত্পাদন সংশ্লিষ্টদের উপদেশ প্রদান অব্যাহত রাখবে এবং চায়ের উত্পাদন স্বাভাবিক রাখার জন্য চা বাগানসমূহে স্বাস্থবিধি মেনে চা উত্পাদন কার্যক্রম অব্যাহত রাখা হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close