অর্থ বাণিজ্য

বৈষম্য থাকলেও দেশ এগোচ্ছে, ভাবাচ্ছে দুর্নীতি।

বৈষম্য আছে, তারপরও দেশের অর্থনৈতিক ও সামাজিক অগ্রগতি অভাবনীয় বলছেন দেশ সেরা অর্থনীতিবিদরা। তবে দুর্নীতির বাড়বাড়ন্ত ভাবনার বলেও মন্তব্য করেন তারা। আর দেশে যে বৈষম্য আছে তা অর্থনীতির সাথে সম্পর্কিত নয়, বরং সুযোগের বৈষম্য বলে মন্তব্য করেছেন কেউ কেউ। সুশাসন প্রতিষ্ঠার পাশাপাশি গ্রামীন অর্থনীতিকে চাঙা করারও পরামর্শ দেন অর্থনীতিবিদরা।
রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশনে অর্থনীতি সমিতির আয়োজনে এক সেমিনারে ‘বাংলাদেশে আয় ও ধন বৈষম্য’ নিয়ে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন অর্থনীতিবিদ মইনুল ইসলাম।
বৈষম্য বৃদ্ধির কারণ হিসেবে সার্বজনীন শিক্ষাব্যবস্থার ত্রুটি ব্যাংকিং খাতে অব্যবস্থাপনা, দুর্বল স্থানীয় সরকার ব্যবস্থা ও রাজনৈতিক দূর্বৃত্তায়নসহ ১২টি বিষয়কে চিহ্নিত করেন তিনি। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনের পর প্রধান বক্তা বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্ণর ড. ফরাস উদ্দিন বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গ্রোথ ইউথ ইকুইটি নীতির সুফল পাচ্ছে বাংলাদেশ। ধনিক শ্রেনী বাড়লেও করের আওতা বাড়ছেনা বলে অভিযোগ তার।
৭৫ পরবর্তী সময়ে দুর্নীতি প্রাতিষ্ঠানিক রূপ পায় বলেও মন্তব্য করেন ফরাস উদ্দিন। সেই বাস্তবতায় বাকশাল একটি কার্যকর কাঠামো হতে পারতো বলেও মত দেন এই অর্থনীবিদ।
রাষ্ট্রের সব ক্ষেত্রে বৈষম্য দূর করতে সুশাসন প্রতিষ্ঠার উপর গুরুত্ব দেন অন্য আলোচকরা।
আর্থিক খাতে বড় ধরনের সংস্কারেরও পরামর্শ আসে সেমিনার থেকে। সেমিনারে উপস্থিত ছিলেন ড. আবুল বারাকাত। বক্তৃতা করেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক জামাল উদ্দিন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker