অর্থ বাণিজ্য

কালো টাকা সাদা করে অর্থনীতিতে যুক্ত হওয়া সময়োপযোগী: রিহ্যাব

২০২৪-২৫ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে কালো টাকা সাদা করে মূল অর্থনীতিতে যুক্ত হওয়া সময়োপযোগী বলে মনে করছেন রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (রিহ্যাব)। বাজেটে জমি ও ফ্ল্যাটের রেজিস্ট্রেশন ব্যয় কমানোসহ ৫ দফা দাবি জানিয়েছে রিহ্যাব।

রোববার (৯ জুন) রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে আয়োজিত বাজেট সর্ম্পকিত রিহ্যাবের সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনটির নেতারা এসব দাবি জানান।

তাদের অন্য দাবিগুলো হলো:

১। রিয়েল এস্টেট সেক্টরের বর্তমান অবস্থা ও বিশ্বের সার্বিক অর্থনৈতিক অবস্থা বিবেচনায় আবাসন ব্যবসায়ীদের আয়কর কমানো।

২। সেকেন্ডারি মার্কেটের প্রচলন করা।

৩। মধ্যবিত্তদের ফ্ল্যাট ক্রয়ে সহায়তার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের মাধ্যমে ডিজিট সুদে ক্রেতা সাধারণকে হোম লোন দেয়ার ব্যবস্থা করা।

৪। নির্মাণ সামগ্রীর মূল্য কমাতে কার্যকর ব্যবস্থা নেয়া।

রিহ্যাব সভাপতি মো. ওয়াহিদুজ্জামান বলেন, ‘দেশের মানুষের মৌলিক অধিকার পূরণের স্বার্থে আমরা আবাসন খাতকে গতিশীল করার আহ্বান জানাই। মানুষ নিরাপদে বসবাসের জন্য মাথা গোঁজার ঠাঁই চায়। সবার জন্য আবাসন সুবিধা নিশ্চিত করতে জাতীয় বাজেট পাস করার আগে আমাদের দাবিগুলো বিবেচনা করা হোক।’

তিনি আরও বলেন, আমাদের দাবিগুলো বাজেটে সম্পৃক্ত করা হলে এ খাত সরকারের রাজস্ব আয়ে ফলপ্রসূ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে এবং ৬ দশমিক ৭৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জন ঝুঁকিমুক্ত হবে। অন্যথায় এ খাতের সঙ্গে যুক্ত সব ব্যবসায়ী মারাত্মক সমস্যার মুখোমুখি হবেন। এতে দেশ অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

তিনি বলেন, প্রস্তাবিত বাজেটে নির্মাণ সামগ্রীর মূল্য বৃদ্ধি, নিবন্ধন ব্যয়, স্বল্প ও মধ্যবিত্ত নাগরিকদের জন্য হাউজিং লোন সম্পর্কে তেমন কোনো আলোচনা নেই। দেশের বৃহত্তর অর্থনীতির স্বার্থে জিডিপিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখা আবাসন খাতকে গতিশীল করার জন্য সরকারের যে ধরনের নীতি সহায়তা দরকার ছিল তা বাজেটে দৃশ্যমান নয়।

অপ্রদর্শিত অর্থ বিনিয়োগের সুযোগকে সাধুবাদ জানিয়ে রিহ্যাব সভাপতি বলেন, ‘আবসান খাতে কালোটাকা (অপ্রদর্শিত অর্থ) বিনিয়োগের সুযোগ নৈতিকভাবে সঠিক না হলেও, এটি সময়োপযোগী। প্রস্তাবিত বাজেটের এ সিদ্ধান্তের ফলে আবাসনে বিনিয়োগ আসবে, সরকারের রাজস্ব বাড়বে।

বাজেট ব্যবসাবান্ধব হয়েছে কি এমন প্রশ্নের জবাবে মো. ওয়াহিদুজ্জামান বলেন, সার্বিকভাবে দেখলে আংশিক ব্যবসাবান্ধব। আমাদের অন্য দাবিগুলো যদি যুক্ত করা হয়, তাহলে আমি বলব পুরোপুরি ব্যবসাবান্ধব হবে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন রিহ্যাবের সহসভাপতি এম. এ. আউয়াল, মোহাম্মদ আক্তার বিশ্বাস, আব্দুর রাজ্জাক, দেলোয়ার হোসেন, প্রেস অ্যান্ড মিডিয়া স্ট্যান্ডিং কমিটির পরিচালক মুহাম্মদ লাবিব বিল্লাহ্।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button