আন্তর্জাতিক

কারাবন্দি দুই নারী সাংবাদিককে মুক্তি দিয়েছে ইরান

ইরানে মাশা আমিনির মৃত্যুর খবর প্রকাশ করার কারণে এক বছরের বেশি সময় ধরে দুই নারী সাংবাদিককে কারাবন্দি থাকতে হয়েছিল। অবশেষে তাদের দুজনকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে। মাশা আমিনির মৃত্যুর ঘটনায় দেশজুড়ে ব্যাপক বিক্ষোভের সূত্রপাত হয়েছিল। খবর বিবিসির।

ইরানের গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, নিলুফার হামেদি (৩১) এবং এলাহেহ মোহাম্মদীকে (৩৬) জামিনে মুক্তি দেওয়া হয়েছে। এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, ওই দুই সাংবাদিক তাদের কারাদণ্ডের বিরুদ্ধে আপিল করেছিলেন এবং আদালতের পরবর্তী সিদ্ধান্ত না আসা পর্যন্ত তারা জামিনে মুক্ত থাকবেন।

ওই দুই নারী সাংবাদিককে যথাক্রমে ১৩ ও ১২ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। দুই লাখ মার্কিন ডলার জামানতে তাদের জামিন হয়েছে। এই সময়ের মধ্যে তারা দেশত্যাগ করতে পারবেন না বলে জানানো হয়েছে।

দেশটির নৈতিকতা পুলিশের হাতে আটক হন মাশা আমিনি। পরে পুলিশ হেফাজতেই মারা যান তিনি। হিজাব পরিধানের কঠোর নিয়ম লঙ্ঘনের অভিযোগে তাকে গ্রেফার করা হয়েছিল।

গত বছরের ১৩ সেপ্টেম্বর ঠিকভাবে হিজাব না পরায় পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছিলেন ২২ বছর বয়সী মাশা আমিনি। ১৬ সেপ্টেম্বর পুলিশি হেফাজতে থাকা অবস্থায় গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন কুর্দি বংশোদ্ভূত ওই তরুণী। পরে স্থানীয় একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

মাশা আমিনির মৃত্যুর পর দেশটিতে হিজাব-বিরোধী আন্দোলন শুরু হয়, যা পরবর্তীতে সরকার-বিরোধী আন্দোলনে রূপ নেয়। বিক্ষোভ আন্দোলনে দুই শতাধিক মানুষ নিহত হয়েছে। হাজার হাজার আন্দোলনকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং কয়েকজনকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

তবে একাধিক আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থার দাবি, হিজাব-বিরোধী এ আন্দোলনে ইরানের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহিংসতায় কমপক্ষে ৪০০ জন নিহত হয়েছেন।

 

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button