জাতীয়লিড স্টোরি

বাংলাদেশে চালু হবে ই-ভিসা:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বিশ্বের উন্নত দেশের মতো বাংলাদেশেও আগামী দিনে ইলেকট্রনিক ভিসা (ই-ভিসা) চালুর পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। সেই সঙ্গে তিনি বলেছেন, চট্টগ্রামের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ছয়টি ই-গেইটের উদ্বোধন করা হয়েছে। শুধু এখানেই নয় পর্যায়ক্রমে স্থল বন্দরগুলোতেও ই-গেইট স্থাপন করা হবে।
মঙ্গলবার (১৫ নভেম্বর) সন্ধ্যায় শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ই-গেইটের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্যকালে মন্ত্রী এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বে দেশ দুর্বার গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনের আগে কথা দিয়েছিলেন ডিজিটাল বাংলাদেশ নির্মাণ করবেন, তিনি তার কথা রেখেছেন। এই সেক্টরটা তিনি সম্পূর্ণ ডিজিটাল করার পদক্ষেপ নিয়েছেন।
তিনি আরও বলেন,’দক্ষিণ এশিয়ার প্রথম দেশ হিসেবে বাংলাদেশ তার নাগরিকদের জন্য ই-গেইট ও ই-পাসপোর্ট প্রবর্তন করেছে। আমি মনে করি ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদফতর, ‘ই-পাসপোর্ট ও স্বয়ংক্রিয় বর্ডার নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থাপনা প্রবর্তন’ শীর্ষক প্রকল্প ও পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চের সদস্যদের নিরলস পরিশ্রম ও আন্তরিকতার ফলেই এই কাজ সম্পন্ন হয়েছে। এর ফলশ্রুতিতে ইমিগ্রেশন সেবা প্রত্যাশী সব বাংলাদেশি নাগরিকরা এর সুফল ভোগ করবেন।’
মন্ত্রী বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার দৃঢ় প্রত্যয়ে ২০২০ সালের ২২ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী মাইক্রো প্রসেসর চিপযুক্ত ই-পাসপোর্টের উদ্বোধন করেন। এর মাধ্যমে বাংলাদেশ বিশ্বের ১১৯তম এবং দক্ষিণ এশিয়ার প্রথম দেশ হিসাবে ই-পাসপোর্ট সেবা চালু হয়। ই-পাসপোর্ট একটি অত্যাধুনিক প্রযুক্তি সম্পন্ন ও অধিকতর নিরাপদ ভ্রমণ দলিল, যা ই-গেইটের সহায়তায় দেশে এবং দেশের বাইরে বাংলাদেশের নাগরিকদের ইমিগ্রেশন আরও সহজ ও নিরাপদ করবে।
ইতোমধ্যেই ইন্টারন্যাশনাল সিভিল এভিয়েশন অরগানাইজেশনের (আইসিএও) ৭২তম সদস্যপদ পেয়েছে বাংলাদেশ। এর ফলে বাংলাদেশিগণ পর্যায়ক্রমে আইসিএও এর অন্যান্য সদস্য দেশসমূহে ই-গেইটের সুবিধা নিতে পারবে। সেই সঙ্গে আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলেও ই-পাসপোর্টের ক্ষেত্র প্রসারিত হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker