জাতীয়

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক দূরন্ত বিপ্লবের মৃত্য

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় বুড়িগঙ্গা নদী থেকে উদ্ধার হওয়া অজ্ঞাত লাশটি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক দুরন্ত বিপ্লব’এর। গত ৭ নভেম্বর থেকে নিখোঁজ ছিলেন তিনি।

এ মৃত্যু মানতে পারছে না দুরন্তের পরিবার। দুরন্তের বোন শাশ্বতী বিপ্লবের দাবি, তার ভাইয়ের এমন মৃত্যু হতে পারে না। এটি কখনো কামনা করেন না তিনি।

ভাইয়ের মৃত্যুতে রোববার আবেগঘন এক স্ট্যাটাসে শাশ্বতী বিপ্লব লিখেছেন, ‘এমন মৃত্যু ভাইয়া ডিজার্ভ করে না। কোনো দিন না। নারায়ণগঞ্জের পাগলাঘাটে কচুরিপানার ওপর এমন অসহায়ভাবে ভেসে থাকতে পারে না দুরন্ত বিপ্লব নামের কিংবদন্তিতুল্য ভাইটা আমার। সারাজীবন নিজের খেয়ালের রাজা ও। যারা ওকে চেনে, তারা জানে কী প্রবল আত্মসম্মানবোধ ছিল ওর। নারায়ণগঞ্জের ভিক্টোরিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে আছে এখন। আমরা কাল রাত ৩টায় সেই ছবি দেখে এসেছি। দুর্জয়, ইমরুলরা ওকে আনতে গেছে। ৭ তারিখেই ও চলে গিয়েছিল আমাদের ছেড়ে। কামরাঙ্গীরচর থেকে পাগলা পর্যন্ত ভেসে যেতে ওর ৫ দিন লেগেছে।’

তিনি আরো লিখেছেন, ‘জানাজা বাদআসর মোহাম্মদপুরের জাপান গার্ডেন সিটির মসজিদের সামনে হবে। যারা শামিল হতে চান, আসবেন।’

দুরন্তের মৃত্যুর বিষয়ে পাগলা নৌপুলিশের এসআই শাহজাহান সাজু জানিয়েছেন, গত ৭ নভেম্বর কেরানীগঞ্জের কামরাঙ্গীরচরের থুতা খেয়াঘাট দিয়ে নদী পারাপারের সময় দুই ট্রলারের সংঘর্ষে কয়েকজন ট্রলার যাত্রী নদীতে পড়ে যান। ওই সময় দুরন্ত বিপ্লব সাঁতার না জানায় পানিতে ডুবে যান।

ফতুল্লার পাগলা নৌ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক শাহ্জাহান আলী বলেন, ‘শনিবার বিকেলে পাগলা ঘাট থেকে একটি মরদেহ উদ্ধার করা হয়। রাত ১২টার দিকে কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করেন নিহতের স্বজনরা। পরে রাত ৩টায় নারায়ণগঞ্জ এসে নিহতের ছবি দেখে মরদেহের পরিচয় শনাক্ত করেন তারা৷’

শাহ্জাহান আলী বলেন, ‘অন্তত ৪৮ ঘণ্টা আগে তার মৃত্যু হয়েছে বলে আমরা ধারণা করছি। মরদেহ ফুলে চেহারা বিকৃত হয়ে গেছে। মাথায় লালচে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে।’

পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, ‘স্বজনরা জানিয়েছেন, দুরন্ত বিপ্লব নামের ওই ব্যক্তি গত ৭ নভেম্বর থেকে নিখোঁজ ছিলেন৷ মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে আছে৷ ময়নাতদন্তের পর পরিবারের মতামতের পরিপ্রেক্ষিতে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে৷’

স্বজনরা জানান, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক দুরন্ত বিপ্লব আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় উপকমিটিরও সদস্য ছিলেন৷ কেরানীগঞ্জে তার কৃষি খামার ছিল৷

তারা জানান, গত ৭ নভেম্বর সন্ধ্যায় কেরানীগঞ্জ থেকে মোহাম্মদপুরে মায়ের বাসায় যাওয়ার পথে তিনি নিখোঁজ হন৷ নিখোঁজের আগে তার মোবাইল ফোনের সবশেষ লোকেশন ছিল কামরাঙ্গীরচরের মুসলিমবাগ৷

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker