রাজনীতি

জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন বলেই সরকারের বেশি ভয়: ফখরুল

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে দাবি করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এজন্যই তাদের এত ভয়। সমাবেশের তিন দিন আগেই গণপরিবহন বন্ধ করে দেয়। সরকারকে পদত্যাগ করে নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে আবারও আহ্বান জানান তিনি।

শনিবার (১২ নভেম্বর) বিকেলে ফরিদপুরের কোমরপুর আব্দুল আজিজ ইনস্টিটিউশন মাঠে আয়োজিত বিভাগীয় গণসমাবেশে প্রধান অতিথি বক্তব্যে এসব কথা বলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম।

বিএনপি মহাসচিব অভিযোগ করে বলেন, ‘সমাবেশে আসতে পথে পথে পুলিশের বাধা। বরিশালে এবং ময়মনসিংহে গাড়ি থেকে নামিয়ে নেতাকর্মীদের মারধর করা হয়েছে। এই হচ্ছে আওয়ামী লীগের গণতন্ত্র। এত ভয় কেন? কারণে জনগণ থেকে তোমরা বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছো। জনগণের সাথে তোমাদের কোনো সম্পর্ক নেই।’

সরকার রাজনীতি ও অর্থনীতির পুরো দেশটাই ধ্বংস করে দিয়েছে দাবি করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, এজন্য তারা এখন ক্ষমতায় টিকে থাকতে বেছে নিয়েছে গুম-খুনের পথ।

আওয়ামী লীগকে উদ্দেশ্য করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘জোর করে কোনোদিন মানুষের সংগ্রামকে বন্ধ করা যাবে না।

এ সময় তিনি আরো বলেন, ‘আমরা রুখে দাঁড়াবো। তরুণদের জেগে উঠতে হবে, সমস্ত মানুষকে জেগে উঠতে হবে এবং দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে। তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনতে হবে এবং নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে যে ৩৫ লাখ মামলা রয়েছে তা প্রত্যাহার করতে হবে।’

ফখরুল বলেন, ‘আমরা এখানে সত্যিকার অর্থে একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র নির্মাণ করতে চাই। নতুন আলোয় উদ্ভাসিত করতে চাই বাংলাদেশকে।’

আওয়ামী লীগের সমালোচনা করে ফখরুল বলেন, ‘এরা মনে করে দেশটা তাদের বাপের, তাদের পৈত্রিক সম্পত্তি। সাধারণ মানুষকে তারা চাকর-বাকর ভাবে, মনে করে যেমন খুশি তেমনভাবে ব্যবহার করা যাবে।’

নিজেদের দাবি তুলে ধরে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘এই মুহূর্তে শেখ হাসিনাকে পদত্যাগ করতে হবে। সংসদ বিলুপ্ত করে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে হবে। সেই সরকার নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন করবে। সেই কমিশন এটি নির্বাচনের ব্যবস্থা করবে, তার মাধ্যমে পার্লামেন্ট তৈরি হবে।’

জ্বালানি তেল ও নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধি, দলীয় কর্মসূচিতে গুলি করে নেতাকর্মীদের হত্যার প্রতিবাদ এবং নির্বাচনকালীন নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের দাবিতে বিভাগীয় (দলের সাংগঠনিক বিভাগ) পর্যায়ে সমাবেশ করছে বিএনপি। ইতোমধ্যে চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ, খুলনা, রংপুর ও বরিশাল বিভাগীয় সমাবেশ সম্পন্ন করেছে দলটি।

এর আগে, ফরিদপুর শহর থেকে ৬ কিলোমিটার দূরে আবদুল আজিজ ইনস্টিটিউট ময়দানে বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশ শুরু হয়েছে।

নির্ধারিত সময় বেলা ২টার বেশ আগে শনিবার বেলা ১১টার দিকে এই সমাবেশ শুরু হয়। এর আগেই কানায় কানায় ভরে যায় সমাবেশস্থল। মাঠটিতে গত কয়েক দিন ধরে জড়ো হচ্ছিলেন বিএনপির নেতা-কর্মীরা।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker