বিনোদনসাহিত্য ও বিনোদন

পদ্মা সেতু নিয়ে যা বললেন তারকারা

স্বপ্নের পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে দেশের রাজনীতি, ক্রীড়া অঙ্গনের সবার পাশাপাশি উচ্ছ্বাসে মেতেছেন শোবিজ অঙ্গনের মানুষেরাও।

শনিবার (২৫ জুন) দুপুর ১২টায় পদ্মা সেতুর উদ্বোধনীতে দেশের বিনোদন জগতের অনেকে উপস্থিত ছিলেন। এর মধ্যে আছেন চিত্রনায়ক রিয়াজ, ফেরদৌস আহমেদ, চিত্রনায়িকা নিপুণ আক্তার, অভিনেত্রী-ব্যবসায়ী শমী কায়সার, আফসানা মিমি, জায়েদ খান, গীতিকার কবির বকুল প্রমুখ।

এদিন মূল অনুষ্ঠান শুরুর আগে ফেসবুক লাইভে বেশ কিছু তারকার সঙ্গে কথা বলেন সাংবাদিক ও লেখক আনিসুল হক।

এ সময় রিয়াজ বলেন, ‘আজ অত্যন্ত আনন্দের দিন। আমাদের স্বপ্নের পদ্মা সেতু বাস্তবে রূপ নিয়েছে। আমাদের পদ্মা সেতুর উদ্বোধন হচ্ছে। আমি মনে করি, পদ্মা সেতু বাংলাদেশের গৌরব। এই গৌরব যার হাত ধরে এসেছে, কৃতজ্ঞতা সেই জননেত্রী শেখ হাসিনাকে। তিনি প্রমাণ করেছেন, আমরা হারতে শিখিনি, হারতে জানি না।’

ফেরদৌস বলেন, ‘পদ্মা সেতু হলো আমাদের স্বপ্ন। সেই স্বপ্ন দেখতে সাহস দেখিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার একান্ত সিদ্ধান্ত এবং একাগ্রতায় পদ্মা সেতু আজ চালু হচ্ছে এবং সেটির উদ্বোধন অনুষ্ঠানে আমরা আসতে পেরেছি। আমাদের জীবনের একটা শ্রেষ্ঠ দিন আজ, শ্রেষ্ঠ অর্জন। একটা বিরাট বড় ইতিহাসের সাক্ষী হলাম।’

নিপুণ বলেন, ‘আমার টাকায় আমার সেতু। আমাদের নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু আজ দৃশ্যমান। আমাদের জীবনের একটা শেষ্ঠ দিন আজ, শ্রেষ্ঠ অর্জন। একটা বিরাট বড় ইতিহাসের সাক্ষী হলাম।’

অন্য সবার মতোই পদ্মা সেতু নিয়ে উচ্ছ্বসিত অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী নায়িকা শাবনূর। দেশের এত বড় অর্জনে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি পোস্ট করে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন এ নায়িকা।

শাবনূর লেখেন, ‘স্বপ্নের পদ্মা সেতু। এটি বাংলাদেশের দীর্ঘতম সেতু, স্থাপত্য শিল্পের এক শ্রেষ্ঠ স্থাপনা এবং ঐতিহাসিক নিদর্শন।’

তিনি আরও লিখেছেন, ‘আমাদের গর্বের এই সেতু উদ্বোধন হওয়াতে আমিও আজ সবার সঙ্গে মহাসুখে উচ্ছ্বসিত, উদ্বেলিত ও আনন্দিত।’

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সহ-সাধারণ সম্পাদক সাইমন সাদিক বলেন, ‘পদ্মা সেতু সারা বাংলাদেশের মানুষকে এক করেছে। আমরা বিশ্বাস করি, বাঙালি জাতি চাইলে অনেক করতে পারে। আমরা আবারও প্রমাণ করেছি। নিজেদের অর্থায়নে পদ্মা সেতু। শুভ কামনা।’

স্বপ্নের পদ্মা সেতু নিয়ে দুই বাংলার অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান বলেন, “পদ্মা যেন প্রায় সমুদ্র। ছোটবেলায় তো আর সমুদ্র দেখিনি। গোপালগঞ্জে দাদার বাড়ি যাওয়ার সময় পাড়ি দিতে হত পদ্মা নদী। পাড়ি দিয়ে চলে যেতাম, কিন্তু মনের মধ্যে প্রবল হয়ে জেগে থাকত তার অক্ষয় রূপ। কারণ, গ্রামের বাড়ি যাওয়ার পথে পদ্মা পার হওয়াটাই যেন আসল ঘটনা। স্মৃতি থেকে অন্য সব কিছু মুছে গেলেও পদ্মাকে মুছে দেয় সাধ্য কার! তার সে কী বিশালতা! এ পারে দাঁড়ালে ও পার দেখা যায় না। ওই যে গানে শুনেছি ‘কূল নাই, কিনার নাই, নাই সে দরিয়ার পাড়ি’, তার সঙ্গে পদ্মার স্মৃতিই যেন একাকার হয়ে আছে। এ যেন সেই দরিয়া, সেই অপার সমুদ্র।

এদিকে পদ্মা সেতুর উদ্বোধনে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে ফেসবুক স্ট্যাটাসে চিত্রনায়ক ওমর সানী লিখেছেন, ‘আমার বাড়ি বরিশাল গৌরনদী। জন্ম- কালিগঞ্জ জিনজিরা, ঢাকা। শ্বশুরবাড়ি সাতক্ষীরা, খুলনা। আলহামদুলিল্লাহ পদ্মা সেতু আমার লাগবে, আপনার লাগবে। আমাদের গর্বের পদ্মা সেতু। আমাদের প্রথম অর্জন স্বাধীনতা, আর দ্বিতীয় অর্জন পদ্মা সেতু। সমালোচনা নয়, আসুন আমরা এক মুখে বলি, আমাদের পদ্মা সেতু।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

Adblock Detected