জাতীয়রাজনীতি

সোনারগাঁও পৌরসভার মেয়র পদে মনোনয়ন প্রত্যাশী যুবমহিলা লীগ নেত্রী নাসরিন সুলতানা ঝরা

নিউজ নাউ বাংলা ডেস্কঃ  সোনারগাঁও পৌরসভার আসন্ন নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী হিসেবে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী বাংলাদেশ যুব মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক নাসরিন সুলতানা ঝরা। সোমবার ৩১শে আগস্ট মুঠোফোনে নিউজ নাউ বাংলা কে এসব কথা জানান তিনি।

নাসরিন সুলতানা ঝরার সাথে ফোনালাপকালে আরও জানান, পারিবারিকভাবেই আওয়ামীলীগের রাজনীতি সাথে জড়িত তিনি। তার পিতা মরহুম জয়নাল আবেদীন ছাত্রজীবন থেকে রাজনীতি করতেন। আমৃত্যু সোনারগাঁ পৌরসভা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ছিলেন। ঝরা বলেন, সোনারগাঁও পুরো এলাকায় আমাদের পরিবারটি আওয়ামী পরিবার হিসেবে সুপরিচিত। বাবার রাজনৈতিক আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে রাজনীতিতে যুক্ত হোন তিনি। ১৯৯৩ সালে অষ্টম শ্রেণিতে থাকা কালীন স্কুল শাখার শাপলা কুঁড়ির আসরের সাংগঠনিক সম্পাদক হন। এর মধ্য দিয়েই তার রাজনৈতিক পদচারনা শুরু হয়।

তারপর ১৯৯৭ থেকে ১৯৯৯ পর্যন্ত এই কলেজ শাখা ছাত্রলীগে সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক ছিলেন । এরপর ১৯৯৮ থেকে ২০০০ প্রযন্ত লালবাগ থানা ছাত্রলীগে ছাত্রী বিষয়ক সম্পাদক পদে ছিলেন।১৯৯৯ থেকে ২০০০ বদরুন্নেসা কলেজ ছাত্রলীগে সাংগঠনিক সম্পাদক ও ২০০১ সাল পর্যন্ত যুগ্ন আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব করেন। এছাড়া ২০০২ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত বদরুন্নেসা কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৬ থেকে ২০১২ পর্যন্ত বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির উপ-সাংস্কৃতিক সম্পাদক ছিলেন। বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির ২০১২ থেকে ২০১৯ পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। ঝরা জানান, তার দীর্ঘ এই রাজনীতি পথচলা সর্বদা মসৃন ছিলনা।২০০২ সাল থেকে ২০০৬ পযন্ত বিএনপি সরকারের আমলে পাঁচ বছরে সাত বার কারা বরন করেন। সেসময় বিএনপি সরকারের পুলিশ ও ছাত্রদল ক্যাডারদের দ্বারা বহুবার শারীরিক নিযার্তনের শিকারও হয়েছিলেন তিনি।

তিনি তার রাজনৈতিক জীবনে সর্বদা তার দল ও জনগনের কল্যাণে নিবেদিত প্রাণ হয়ে কাজ করে গেছেন।
পৌরসভা মেয়র পদে নির্বাচিত হলে কি কি করবেন এমন প্রশ্নের জবাবে ঝরা বলেন, যেহেতু সোনারগাঁও পৌরসভা একটি পর্যটন এলাকা , এখানে দেশ ছাড়াও বিদেশী অনেক পর্যটকও নিয়মিত যাতায়াত করেন, তাই পর্যটন এলাকা হিসেবে পৌরসভার সার্বিক উন্নয়নে বিশেষ দৃষ্টি রেখে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহন করবো। এতে এলাকার অনেক বেকারত্বও দূর হবে। নারীদের বিভিন্ন প্রশিক্ষনের মাধ্যমে তাদের স্বাবলম্বী করে গড়ে তুলবো। আমাদের এই নগরী একটি কারুশিল্প এলাকাও বটে। এখানে ইচ্ছে করলেই অনেক কর্মক্ষেত্র তৈরী করা যায়। এতে আমাদের পৌরসভা সবদিক দিয়েই অনেক উন্নত হবে।

আর সোনারগাঁকে একটি আদর্শ টুরিস্ট নগরী হিসেবে গড়ে তোলা ও উন্নয়নের বহুধাপ এগিয়ে নেবার ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে আসন্ন সোনারগাঁও পৌরসভা নিবাচনে মেয়র পদে মনোনয়ন নিয়ে নিবাচনে অংশগ্রহন করতে চান।

এবিষয়ে তিনি আরও বলেন,আল্লাহ্ যদি চান , তাহলে আমি মনোনয়ন পাবো ইনশাআল্লাহ্। এবং দলীয় ও সর্বস্তরের মানুষের ভালবাসা ও দোয়ায় বিজয়ী হব ইনশাআল্লাহ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close