আন্তর্জাতিকজাতীয়

ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরামের শুভেচ্ছা দূত হলেন সায়মা ওয়াজেদ

ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরামের (সিভিএফ) বিষয়ভিত্তিক দূত হিসেবে মনোনীত হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ হোসেন পুতুল। বর্তমানে তিনি বাংলাদেশের অটিজম বিষয়ক জাতীয় কমিটির চেয়ারপারসন হিসেবেও দায়িত্ব পালন করছেন।

 

ওই ফোরাম সায়মা ওয়াজেদ ছাড়া আরও তিনজনকে শুভেচ্ছা দূত হিসেবে মনোনয়ন দিয়েছে। তারা হচ্ছেন

মালদ্বীপের সাবেক প্রেসিডেন্ট মোহাম্মাদ নাশিদ

ফিলিপাইনের ডেপুটি স্পিকার লোরেন লাগার্দা ও

ডিআর কঙ্গো’র জলবায়ু পরিবর্তন বিশেষজ্ঞ টুসি মোপানো-মোপানো।

বুধবার (২২ জুলাই) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

রাষ্ট্রদূত হিসাবে তারা বিশ্বব্যাপী প্রচার-প্রচারণা তৈরি করার এবং জলবায়ুর দুর্বলতার বিষয়ে বিশ্বব্যাপী সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য বিভিন্ন স্টেকহোল্ডার, গোষ্ঠীকে একত্রিত করার লক্ষ্যে বিশেষত দেশগুলিকে প্যারিস চুক্তির লক্ষ্য 1.5 ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড রাখার জন্য সচেষ্ট করবে।

রাষ্ট্রদূতরা সিভিএফ প্রেসিডেন্সির এজেন্ডা এবং মূল অগ্রাধিকারগুলি অনুসরণ করতে এবং সরকারের কার্যনির্বাহী শাখার বাইরে বিদ্যমান এবং নতুন নেটওয়ার্কগুলি পৌঁছে দিয়ে জলবায়ু ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলির স্বার্থ রক্ষায় অবদান রাখতে সহায়তা করবে। তারা সিভিএফ দেশগুলির পক্ষে ওকালতি করবেন এবং জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাবের বিরুদ্ধে লড়াই করতে আন্তর্জাতিক সহযোগিতা সমন্বিত করবেন।

বিশ্বে জলবায়ু পরিবর্তনের পরিপ্রেক্ষিতে যেসব দেশ প্রবল ঝুঁকির মুখে রয়েছে, সেসব দেশের জোট সিভিএফ। বিশ্বের ৪৮টি দেশ সিভিএফের সদস্য। বাংলাদেশ চলতি বছর থেকে সিভিএফের চেয়ার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button