রাজনীতি

ঢাকা দক্ষিনে সাধারন-সম্পাদক পদে আলোচনায় সোহেল শাহরিয়ার

সম্প্রতি ক্যাসিনো,চাঁদাবাজি,টেন্ডারবাজিসহ নানা অপরাধে জড়িয়ে আলোচনায় রয়েছে আওয়ামী লীগের শীর্ষ অঙ্গসংগঠন যুবলীগ। সংগঠনটিকে নেতিবাচক ধারা থেকে বের করে ইতিবাচক ব্র্যান্ডে যুক্ত করতে চান আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাই যুবলীগে ব্যাপক পরিবর্তন আনছে। গুরুত্বপূর্ণ পদগুলোয় রদবদল হবে চোখে পড়ার মতো। নেতৃত্বে ক্লিন ইমেজ ফিরিয়ে আনার মূল টার্গেটে আওয়ামী যুবলীগ। তারুণ্যনির্ভর, ত্যাগী ও স্বচ্ছ ভাবমূর্তির নেতৃত্ব চাচ্ছে দলের হাইকমান্ড। ঢাকা মহানগর দক্ষিন যুবলীগের সাধারন সম্পাদক পদে তৃর্ণমূলের চাওয়া পাওয়া বরিশালের বাকেরগঞ্জ পৌর এলাকার বীরমুক্তিযোদ্ধা মৃত চান মিয়ার ছেলে সাবেক ছাত্রলীগনেত সোহেল শাহরিয়ার রানা। সংগঠনটির এই ক্রান্তিকালে সাধারন কর্মীসমার্থকরা দুর্দিনের পরিক্ষিত ও ছাত্রলীগের ত্যাগী নেতা, দক্ষ সংগঠক সোহেল শাহরিয়ার রানাকে ঢাকা মহানগর দক্ষিন যুবলীগের সাধারন সম্পাদক হিসেবে দেখতে চায়। দলের দু:সময়ে তাকে পাশে পেয়েছেন দলের সাধারন কর্মীর সমর্থকরা। তিনি একজন মুক্তিযোদ্ধা ও আওয়ামী পরিবারের সন্তান। দু:সময়ের ত্যাগী ও পরীক্ষিত মুজিব অন্তঃপ্রান নেতা সোহেল শাহরিয়ার রানা ১৯৯৭ থেকে ২০০২ সাল পর্যন্ত হাবিবুল্লাহ বাহার ইউনির্ভাসিটি কলেজ ছাত্রলীগের এর সাধারন সম্পাদক, ২০০২ থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত বৃহত্তর মতিঝিল থানা ছাত্রলীগ এর সাধারন সম্পাদক, ২০১২ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত কানাডা টরেন্টো সিটি আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন।

এখানেই থেমে নেই তার রাজনৈতিক পথচলা বর্তমানে কানাডা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারন সম্পাদক এর দায়িত্বে রয়েছেন সাবেক নির্যাতিত এই ছাত্রলীগনেতা। এত দিনের রাজনীতিতে নেতিবাচক দিক থেকে একটু সমালোচনায় পরতে হয়নি ক্লিন ইমেজের সোহেল শাহরিয়ার রানাকে। দু:সময়ে দেশের রাজনীতিতে রাজপথ কাঁপানো মুজিব আদর্শের সৈনিক সৎ, মেধাবী, সাহসী ও নিবেদিত যুবরত্ন সোহেল শাহরিয়ার রানার বিরুদ্ধে ২০০৪ সাল থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত বি.এন.পি-জামায়াত জোট সরকার কমপক্ষে ১০-১২টি মিথ্যা মামলা দায়ের করে। এসব দায়েরকৃত মামলায় বিভিন্ন মেয়াদে কমপক্ষে ২০-২৪ মাস চার দেয়ালের অন্ধকার আচ্ছন্ন জেলখানায় বন্ধি থাকতে হয়েছে তাকে। বি.এন.পি-জামায়াত জোট সরকার তার বিরুদ্ধে শুধু মামলা দিয়েই ক্ষান্ত ছিল না। হামলার শিকার হতে হয়েছে শতাধিকবার এবং তৎকালীন সময় জোট সরকার বিরোধী আন্দোলনকে প্রশ্নবিদ্ধ ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার জন্য তার নাম ব্যবহার করে ও তাকে সন্ত্রাসী আখ্যায়িত করে তারা মিথ্যা অপপ্রচার চালায়। কারন তৎকালীন সময়ে সোহেল শাহরিয়ার রানা মতিঝিল থানা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক ছিলেন এবং তার নেতৃত্বে থানা ছাত্রলীগের তীব্র আন্দোলন দমাতে বি.এন.পি- জামায়াতের বাহিনীরা এক প্রকার হিমশিম খাচ্ছিলো। একজন কর্মী বান্ধব সৎ রাজনীতিক হিসেবে ঢাকা মহানগর দক্ষিন এলাকায় তিনি দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থক সহ সাধারন মানুষের কাছে এক প্রিয় ব্যক্তিত্ব পরিচিত। বরিশালের কৃতিসন্তান সোহেল শাহরিয়ার রানাকে আওয়ামী যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিনের সাধারন সম্পাদক হিসেবে দেখতে চায় তৃর্নমূল আওয়ামী লীগের কর্মী সমর্থকরা।
সোহেল শাহরিয়ার রানা বলেন, আমি প্রানমন্ত্রীর শুদ্ধি অভিযানকে স্বাগত জানাই। আমি চাই সম্মেলনের মাধ্যমে মাঠ পর্যায়ের ক্লিন ইমেজের যাদের অতীত ইতিহাস রয়েছে। যারা দলকে সুসংগঠিত করতে পারবে। যারা সব সময় নেতাকর্মীদের পাশে থেকেছেন। এমন নেতৃত্বই প্রধানমন্ত্রী আমাদের উপহার দিবেন বলে আশা করি। তাহলেই ঢাকা মহানগর দক্ষিন আওয়ামী যুবলীগ আরো বেশি শক্তিশালী হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker