জেলার খবর

বন্দুকযুদ্ধে তিন জেলায় নিহত ৪।

দেশের তিন জেলায় এক রাতেই বিজিবি ও পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ চারজন নিহত হয়েছেন।
এর মধ্যে কক্সবাজারে নাফ নদীর তীরে বিজিবির গুলিতে নিহত হয়েছেন দুই রোহিঙ্গা ‘মাদক চোরাকারবারি’। আর জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে অপহরণ মামলার আসামি এবং ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে ডাকাতি মামলার আসামি পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছেন।
বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৩টার দিকে টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের লম্বাবিল এলাকায় মাদক চোরাকারীদের সাথে বন্দুকযুদ্ধ হয়।
নিহতরা হলেন- উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা সুলতান আহম্মেদ এর ছেলে মো. আবুল হাসিম (২৫) এবং একই ক্যাম্পের আবু সিদ্দিকের ছেলে নুর কামাল (১৯)।
বিজিবি জানায়, নাফ নদীর লম্বাবিল পয়েন্ট দিয়ে ইয়াবার একটি বড় চালান আসার খবর পেয়ে তাদের একটি দল রাতে সেখানে অবস্থান নেয়। এক পর্যায়ে মিয়ানমারের দিক থেকে একটি নৌকায় ৪/৫ জনকে আসতে দেখে বিজিবির সদস্যরা তাদের থামার সংকেত দেন।
‘নৌকাটি কিনারে এলে দুইজন লোক লাফ দিয়ে দৌঁড়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এসময় বিজিবি সদস্যরা তাদের ধাওয়া করে। এক পর্যায়ে চোরাকারবারিরা গুলি ছুড়তে শুরু করে। সঙ্গে সঙ্গে নৌকায় থাকা তাদের সহযোগীরাও বিজিবির দিকে গুলি শুরু করে।
‌বিজিবি সদস্যরাও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি করে। নৌকায় থাকা লোকজন এসময় পালিয়ে যায়। গোলাগুলি থামার পর ঘটনাস্থলে দুইজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়।
তাদের কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক দুজনকেই মৃত ঘোষণা করেন।
ঘটনাস্থল থেকে ৫০ হাজার ইয়াবা, একটি দেশি বন্দুক, দুটি গুলি ও দুটি কিরিচ উদ্ধার করা হয়েছে।
এদিকে শুক্রবার ভোরে পাঁচবিবি উপজেলার ভুতগাড়ী গ্রামে গোলাগুলির ওই ঘটনা ঘটে ।
নিহত আমিনুল ইসলাম ওরফে ক্যাসেট (৪২) পাঁচবিবি উপজেলার পিয়ারা গ্রামের মৃত শাহাবুল ইসলামের ছেলে।
তিনি অপহরণ, মুক্তিপণ আদায়, মাদকের কারবার, ছিনতাইসহ বিভিন্ন অভিযোগে এক ডজন মামলার পলাতক আসামি বলে জানিয়েছে পুলিশ।
এদিকে ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে গোয়েন্দা পুলিশের সঙ্গে ত বন্দুকযুদ্ধে ডাকাতি মামলার এক আসামি নিহত হয়েছেন।
বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে গফরগাঁও-রসুলপুর আঞ্চলিক সড়কে গোলাগুলির ওই ঘটনা ঘটে বলে ।
নিহত মোতালেব হোসেন (৪২) গফরগাঁও উপজেলার রসুলপুর ছয়ানি গ্রামের মৃত আব্দুল গফুরের ছেলে।
পুলিশ বলছে, মোতালেব একটি ‘ডাকাত দলের সদস্য’ ছিলেন এবং তার বিরুদ্ধে ডাকাতির অভিযোগে ৫টি মামলাও রয়েছে ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker