জাতীয়

দল-আত্মীয়-পরিবারই নয়, দুর্নীতির সাথে জড়িত সবার বিরুদ্ধেই ব্যবস্থা নেয়া হবে: প্রধানমন্ত্রী

দল, আত্মীয় কিংবা পরিবার নয়, দুর্নীতির সাথে যেই জড়িত হোক না কেন সবার বিরুদ্ধেই ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে কঠোর হুঁশিয়ারি দিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, এ অভিযান অব্যাহত থাকবে। রাজধানীর একটি হোটেলে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে বেসরকারি টেলিভিশন বাণিজ্যিক সম্প্রচারের উদ্বোধন করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দ্রুতই সম্প্রচার মাধ্যমগুলোর আরো অনেক বাধা দুর হবে।
তিনি বলেন, ‘এ অভিযান অব্যাহত থাকবে। অপরাধী যে-ই হোক না কেন তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। দল, আত্মীয়, পরিবার নয়, সবার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কোনও ছাড় দেওয়া হবে না। আমার হারানোর আর কিছু নেই। আমি দেশের মানুষের জন্য জীবন বাজি রেখেই কাজ করে যাচ্ছি।’
বাংলাদেশের প্রথম যোগাযোগ উপগ্রহ ‘বঙ্গবন্ধু-১’ স্যাটেলাইটটি সফলভাবে উৎক্ষেপণ করা হয় গেলো বছরের ১১ মে মধ্যরাতে। এর মাধ্যমে বিশ্বের ৫৭তম দেশ হিসেবে স্যাটেলাইটের অভিজাত ক্লাবে নাম লেখায় বাংলাদেশ। জয় হয় মহাকাশ।
উৎক্ষেপণের এক বছর চার মাস পর আয়ের খাতায় নাম লেখাতে যাচ্ছে বিএস-১। সম্প্রচারে থাকা দেশের ৩৪ টি টিভি চ্যানেলের বানিজ্যিক সম্প্রচারের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
এর ফলে নিজস্ব স্যাটেলাইট ব্যবহার করে মোটা খরচের চাপ থেকে রক্ষা পেল টেলিভিশন শিল্প। ঐতিহাসিক এ যাত্রায় মালিকদের সংগঠন অ্যাটকোকে ধন্যবাদ জানান প্রধানমন্ত্রী।
প্রতিযোগীতামূলক বিশ্বে টিকে থাকতে ডিজিটালাইজেশনের গুরুত্ব তুলে ধরেন সরকার প্রধান।
ধানমন্ত্রী বলেন, ‘আজ আমি খুবই আনন্দিত। কারণ দেশের সব টিভি চ্যানেল বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর মাধ্যমে বাণিজ্যিক কার্যক্রম শুরু করেছে। এতদিন আপনারা দেশের বাইরে টাকা পাঠাতেন। এখন আপনাদের অনেক টাকা বেঁচে গেলো। আশা করি ইলেকট্রনিক সম্প্রচার মাধ্যমগুলোর আরও অনেক বাধা দূর হবে। পরনির্ভরশীলতা থাকবে না। আমরা নিজের পায়ে দাঁড়ানোর সুযোগ পেলাম।’
তিনি বলেন, ‘আমরা আশপাশের দেশগুলোর কাছেও অফার করেছি। তারাও চাইলে ভাড়া নিতে পারবে এর ট্রান্সপন্ডার। এখান থেকেও আমরা অর্থ উপার্জন করতে পারবো। স্যাটেলাইটের মাধ্যমে প্রত্যন্ত অঞ্চলে অনেক সহজে বার্তা পৌঁছানো যাবে। নিজস্ব প্রযুক্তি ও জ্ঞান দিয়ে বাংলাদেশ একদিন মহাকাশ জয় করবে, এটা আমার বিশ্বাস।’
গণমাধ্যমের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সরকারের বিরুদ্ধে কথা না বললে আকর্ষণ থাকবে না—এমন ধারণা প্রচলিত আছে। আপনারা সেটা করতে পারেন, তাতে আমার কোনও সমস্যা নেই। তবে মিথ্যা অপপ্রচার যেন না হয় দয়া করে সে সতর্ক থাকবেন। মিথ্যা অপপ্রচারে দেশের মানুষের মধ্যে সন্দেহ হয়। এমন কিছু করবেন না যাতে মানুষ আত্মবিশ্বাস হারিয়ে ফেলে।’
তিনি বলেন, ‘গত ১০ বছরে দেশের জন্য আমরা অন্তত কিছু কাজ তো করেছি। সেটা তো অস্বীকার করতে পারবেন না। সেটা একটু প্রচার করবেন। যেটুকু ভালো কাজ করেছি সেটুকু প্রচার করুন, এটুকু আমি চাইতেই পারি। ‘

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker