জাতীয়

রোহিঙ্গা ক্যাম্প ঘিরে বসবে কাটাতাঁর।

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে দেরি হচ্ছে উল্লেখ করে নিরাপত্তা রক্ষায় ক্যাম্পের চারদিকে কাঁটাতারের বেড়া স্থাপন করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। রোহিঙ্গারা ইয়াবা বাণিজ্য ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়ছে বলেও উল্লেখ করেন মন্ত্রী। রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফিরিয়ে নিতে বিশ্বনেতারা আন্তরিক বলে জানান তিনি।
মিয়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গারা কক্সবাজারে অবস্থান করছে ২ বছরের বেশি সময় ধরে ১১ লাখের এই বিশাল জনগোষ্ঠীকে ফিরিয়ে নিতে গড়িমসি করছে নেপিদো। বাংলাদেশ চেষ্টা করছে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে এ প্রক্রিয়ায় আরো বেশি সম্পৃক্ত করতে।
এরইমধ্যে রোহিঙ্গারা জাতীয় পরিচয় পত্র সংগ্রহসহ নানা বিতর্কেরও জন্ম দিয়েছে। জড়িয়ে পড়ছে সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে। এই জনগোষ্ঠীকে নজরদারিতে রাখতে নিরাপত্তা বেস্টনী বা কাঁটাতারের বেড়া স্থাপনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।
কাঁটাতারের বেড়া সম্পর্কে জানতে সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দফতরে হাজির হন বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্র ও নেপালের রাষ্ট্রদূত এবং ইউরোপিয় ইউনিয়নের প্রতিনিধিরা। পরে বৈঠকের বিস্তারিত জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।
কাঁটাতারের বেড়া তৈরির কাজ কবে শুরু হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, “মাত্রই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিয়েছেন। এর প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।”
রাতে নিরাপত্তাবাহিনী রাস্তা ছাড়া আর কোথাও টহল দিচ্ছে না বলেও জানান মন্ত্রী। তিনি বলেন, “সেজন্য ওয়াচ টাওয়ারসহ বিভিন্ন পন্থা অবলম্বন করব, ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা স্থাপন করব, যাতে করে তাদের অবস্থান সব সময় আমরা মনিটরিং করতে পারি।
কাঁটাতারের বেড়া হলে কোনো সমস্যা হবে না এমন আশ্বাসও প্রতিনিধি দলকে দেওয়া হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, “আমরা শুধু রোহিঙ্গাদের নজরদারিতে রাখতে চাই।”
খুব সহজে রোহিঙ্গা সংকট সমাধান হবেনা বলেই নিরাপত্তার স্বার্থে এই ব্যবস্থা বলে জানান তিনি।
রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসনে ভাসানচর প্রস্তুত উল্লেখ করে মন্ত্রী জানান, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ পেলেই স্থানান্তর কার্যক্রম শুরু হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker