আন্তর্জাতিক

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ বার্ষিকী উদযাপনের আগ্রহ ভারতের।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী পালনের আগ্রহ দেখিয়েছে ভারত। একইসঙ্গে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের ৫০ বছর পূর্তি উৎসবেও পাশে থাকতে চায় দেশটি। বাংলাদেশে সফররত ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর মঙ্গলবার সাংবাদিকদের একথা জানান।

ঢাকা-দিল্লি বৈঠক শেষে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর বলেন, আজকের বৈঠক খুবই ফলপ্রসূ হয়েছে। আমাদের দুই দেশের মধ্যে খুবই শক্তিশালী বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বিরাজ করছে। যা সোনালী অধ্যায় নামে আমরা অভিহিত করছি। এই সম্পর্ককে আমরা আরও নতুন মাত্রায় উন্নীত করতে চাই।পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে ঢাকাতে এটাই তার প্রথম সফর বলে জানান এস জয়শঙ্কর। দুদেশের অর্থনীতির ক্ষেত্রে নতুন অধ্যায়ের সূচনা হতে যাচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী আমরাও উদযাপন করতে চাই। পাশাপাশি বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের ৫০ বছর পূর্তি উৎসব আমরা পাশে থাকতে চাই।তিনি জানান, আগামী অক্টোবরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরই তার এই সফরের অন্যতম ইস্যু। এস জয়শঙ্কর বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফর নিয়ে আলোচনা করা তার এই সফরের অন্যতম উদ্দেশ্য। পাশাপাশি দুই দেশের জনগণকে বার্তা দেওয়া যে বাংলাদেশ ভারত সম্পর্ক অনেক গুরুত্বপূর্ণ। কেননা ভারতের পররাষ্ট্রনীতিতে প্রতিবেশীকে সবার আগে অগ্রাধিকার দেওয়া হয়ে থাকে। ভারত বাংলাদেশ দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক বিশ্বের জন্য অনন্য দৃষ্টান্ত।বাংলাদেশের উন্নয়নে ভারত সব ধরনের সহায়তা করতে প্রস্তুত আছে বলেও জানান ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, আমরা বিশ্বাস করি এই অঞ্চলের নিরাপত্তায় দুই দেশ একসঙ্গে কাজ করবে। সন্ত্রাস চরমপন্থা এবং জঙ্গিবাদ নির্মূলে আমরা কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করব বলে আজকের বৈঠকে আলোচনা করেছি। বাণিজ্য ভারসাম্য, কানেক্টিভিটি, যোগাযোগ, পানি ভাগাভাগিসহ দ্বিপক্ষীয় সকল বিষয়ে আমরা একসঙ্গে কাজ করে দুই দেশের উন্নয়ন করবে নিশ্চিত করব।এসময় রোহিঙ্গা শব্দটি উচ্চারণ না করে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আজকের বৈঠকে মিয়ানমারের বাস্তুচ্যুত জনগোষ্ঠীর বিষয়ে আলাপ হয়েছে। ভারত এই জনগোষ্ঠীর টেকসই প্রত্যাবাসন চায়। এই ইস্যুতে আরও মানবিক সহায়তা দিতে ভারত প্রস্তুত আছে। ভারত এই সমস্যার সমাধান চায়।গণমাধ্যম-কর্মীরা তিস্তা পানি বণ্টন বিষয়ে জানতে চাইলে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এই বিষয়ে আগেই আমরা ঢাকাকে কথা দিয়েছি, সে অনুযায়ী কাজ হবে।এদিকে বৈঠকের ফলাফল সম্পর্কে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, খুব ভালো বৈঠক হয়েছে, আমি উচ্ছ্বসিত।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker